বাংলা একাডেমিতে নেওয়া হচ্ছে না মাকিদ হায়দারের মরদেহ, দাফন করা হবে পাবনায়


অনলাইন ডেস্ক
প্রকাশের সময় : জুলাই ১০, ২০২৪ । ১:২৬ অপরাহ্ণ
বাংলা একাডেমিতে নেওয়া হচ্ছে না মাকিদ হায়দারের মরদেহ, দাফন করা হবে পাবনায়
ফাইল ছবি

সত্তর দশকের বিখ্যাত কবি মাকিদ হায়দারের মরদেহ আজ বুধবার বাংলা একাডেমি চত্বরে নেওয়া হচ্ছে না। কবির পরিবার কোটা সংস্কার আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের ‘বাংলা ব্লকেড’ কর্মসূচির কারণে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

প্রাথমিকভাবে, কবির প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য আজ বুধবার দুপুরে মরদেহ বাংলা একাডেমি চত্বরে নেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছিল। বাদ জোহর উত্তরা ৩ নম্বর সেক্টরের মসজিদে প্রথম জানাজার পর সেখান থেকে কবির মরদেহ বাংলা একাডেমি চত্বরে নেওয়ার কথা ছিল।

কিন্তু কোটা সংস্কার আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা বাংলা একাডেমি চত্বরে জড়ো হয়ে বিক্ষোভ শুরু করায় কবির পরিবার এই সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করে।

এর পরিবর্তে, উত্তরায় প্রথম জানাজা শেষে কবিকে পাবনায় নিয়ে যাওয়া হবে। সেখানে দ্বিতীয় জানাজা শেষে পারিবারিক গোরস্তানে তাঁকে দাফন করা হবে।

মাকিদ হায়দার বুধবার সকাল সাড়ে আটটায় উত্তরার নিজ বাসায় মারা যান। তিনি দীর্ঘদিন ধরে নানা রোগে ভুগছিলেন।

তিনি ১৯৪৭ সালের ২৮ সেপ্টেম্বর পাবনার বিখ্যাত হায়দার পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তার পরিবারের প্রত্যেকেই বাংলা সাহিত্যে প্রতিষ্ঠিত ব্যক্তিত্ব।

পাঁচ দশক ধরে বাংলা সাহিত্যে অনবদ্য অবদান রেখেছেন মাকিদ হায়দার। নিজস্ব এক অনন্য ভাষায় কবিতা লেখার জন্য তিনি বিশেষভাবে পরিচিত ছিলেন।

তার উল্লেখযোগ্য লেখার মধ্যে রয়েছে ‘রোদে ভিজে বাড়ি ফেরা’, ‘আপন আঁধারে একদিন’, ‘রবীন্দ্রনাথ: নদীগুলা’, ‘বাংলাদেশের প্রেমের কবিতা’, ‘যে আমাকে দুঃখ দিলো সে যেনো আজ সুখে থাকে’, ‘কফিনের লোকটা’, ‘ও প্রার্থ ও প্রতিম’, ‘প্রিয় রোকানালী’, ‘মমুর সাথে সারা দুপুর’ ইত্যাদি।

মাকিদ হায়দার বাংলা একাডেমি সহ দেশের বিভিন্ন সম্মানজনক সাহিত্য পুরস্কারে ভূষিত হয়েছিলেন।

তার মৃত্যুতে বাংলা সাহিত্য জগতে এক अपूरणीय क्षति হয়েছে।

পুরোনো সংখ্যা

শনি রবি সোম মঙ্গল বু বৃহ শুক্র
 
১০১১
১৩১৫১৬১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭৩০৩১