আইআইইউসিতে ৫০ ফিলিস্তিনি শিক্ষার্থীর জন্য বিনা বেতনে পড়াশোনার সুযোগ


আব্দুল্লাহ আল মারুফ, চট্টগ্রাম জেলা প্রতিনিধি
প্রকাশের সময় : জুলাই ৭, ২০২৪ । ৯:১১ অপরাহ্ণ
আইআইইউসিতে ৫০ ফিলিস্তিনি শিক্ষার্থীর জন্য বিনা বেতনে পড়াশোনার সুযোগ

আন্তর্জাতিক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় চট্টগ্রাম (আইআইইউসি) এর ব্যাচেলর প্রোগ্রাম অটাম-২০২৪ সেশনের ওরিয়েন্টেশন অনুষ্ঠান রবিবার (৭ জুলাই) সকাল ১১ টায় আইআইইউসির কেন্দ্রীয় মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়েছে।

আইআইইউসির অটাম-২০২৪ সেশনের ওরিয়েন্টেশন প্রোগ্রামে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশে নিযুক্ত ফিলিস্তিনের মান্যবর রাষ্ট্রদূত ইউসুফ এস ওয়াই রামাদান।

প্রধান অতিথি তাঁর বক্তব্যে বলেন, ফিলিস্তিনের সাথে বাংলাদেশের খুবই বন্ধুত্বপূর্ণ ও মানবিক সম্পর্ক। বাঙ্গালীরা যেমন স্বাধীনতা সংগ্রামের মাধ্যমে বাংলাদেশ স্বাধীন করেছে ঠিক সেভাবেই নির্যাতিত ফিলিস্তিনিরা স্বাধীন ফিলিস্তিন রাষ্ট্রের জন্য বহু বছর ধরে সংগ্রাম করে যাচ্ছে। আমি আজ এই বিশ্ববিদ্যালয়ে আসতে পেরে আনন্দিত ও সম্মানিত বোধ করছি। আইআইইউসি কর্তৃপক্ষের ৫০ জন নির্যাতিত ফিলিস্তিনি মেধাবী শিক্ষার্থীকে আবাসিক সুবিধা সহ বিনা বেতনে পড়ার সুযোগ দেওয়ার সিদ্ধান্তকে আমি স্বাগত জানাই। এমন মানবিক সিদ্ধান্ত নেওয়ায় আইআইইউসি কর্তৃপক্ষের প্রতি আমি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করছি। আমি উপস্থিত নবীন শিক্ষার্থীদের উত্তরোত্তর সফলতা কামনা করছি।

আন্তর্জাতিক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় চট্টগ্রামের উপাচার্য প্রফেসর আনোয়ারুল আজিম আরিফের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ওরিয়েন্টেশন প্রোগ্রামে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আন্তর্জাতিক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় চট্টগ্রাম (আইআইইউসি) এর বোর্ড অব ট্রাস্টিজের চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. আবু রেজা মুহাম্মদ নেজামুদ্দিন নদভী।

বিশেষ অতিথি তাঁর বক্তব্যে বলেন, বাংলাদেশ সবসময় ফিলিস্তিনের পাশে আছে। আমরা আইআইইউসি পরিবারও ফিলিস্তিনের পাশে আছি। আইআইইউসি কর্তৃপক্ষ ৫০ জন নির্যাতিত ফিলিস্তিনি মেধাবী শিক্ষার্থীকে আবাসিক সুবিধা সহ বিনা বেতনে পড়ার সুযোগ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। আমি উপস্থিত নবীন শিক্ষার্থীদের উজ্জল ভবিষ্যৎ কামনা করছি।

অনুষ্ঠানের সভাপতি আইআইইউসি উপাচার্য প্রফেসর আনোয়ারুল আজিম আরিফ তাঁর বক্তব্যে বলেন, জাতিসংঘে দেওয়া ভাষণে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ফিলিস্তিনের পক্ষে কথা বলেছিলেন। বাঙ্গালী জাতি সবসময় নির্যাতিত ফিলিস্তিনিদের পক্ষে রয়েছে। আজকে উপস্থিত নতুন শিক্ষার্থীদের জীবনের নতুন অধ্যায় শুরু হলো, তোমাদেরকে ভবিষ্যৎ ভালো করতে হলে পরিশ্রমের সহিত পড়া লেখা করতে হবে।

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন আইআইইউসি বোর্ড অব ট্রাস্টিজের ভাইস চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. কাজী দ্বীন মোহাম্মদ, বিওটি সদস্য ও মিডিয়া, প্রেস, পাবলিকেশন্স এন্ড এডভারটাইজম্যান্ট কমিটির চেয়ারম্যান মোহাম্মদ খালেদ মাহমুদ, বিওটি সদস্য ও পারচেজ কমিটির চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. মোহাম্মদ সালেহ জহুর, আইআইইউসি উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. মোহাম্মদ মছরুরুল মওলা, ভারপ্রাপ্ত ট্রেজারার প্রফেসর ড. মোঃ মাহি উদ্দিন, পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক প্রফেসর ড. মোহাম্মদ গিয়াস উদ্দিন হাফিজ, রেজিস্ট্রার আ ফ ম আখতারুজ্জামান কায়সার, ফ্যাকাল্টি ডীন বৃন্দ, ডিপার্টমেন্ট চেয়ারম্যান বৃন্দ সহ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-কর্মকর্তা বৃন্দ। অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন আইআইইউসি উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. মোহাম্মদ মছরুরুল মওলা, ভারপ্রাপ্ত ট্রেজারার প্রফেসর ড. মোঃ মাহি উদ্দিন, সমাজবিজ্ঞান অনুষদের ডীন প্রফেসর ড. জাহেদ হোসেন সিকদার, হাদিস ও ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের চেয়ারম্যান সায়েদ নূর।

বাংলাদেশ ও ফিলিস্তিন দুই দেশের জাতীয় সংগীত পরিবেশনা এবং পবিত্র কোরআন তেলওয়াতের মাধ্যমে ওরিয়েন্টেশন অনুষ্ঠান শুরু হয়। পবিত্র কোরআন তেলওয়াত করেন আন্তর্জাতিক পুরষ্কার প্রাপ্ত হাফেজ জাকারিয়া। এর পর আইআইইউসি ডকুমেন্টারি প্রদর্শন করা হয়। পরে আইআইইউসি বোর্ড অব ট্রাস্টিজ চেয়ারম্যান প্রধান অতিথিকে আইআইইউসির পক্ষ থেকে ক্রেস্ট তুলে দেন। অনুষ্ঠানের আগে প্রধান অতিথি বাংলাদেশে নিযুক্ত ফিলিস্তিনের মান্যবর রাষ্ট্রদূত ইউসুফ এস ওয়াই রামাদান ক্যাম্পাসে বৃক্ষরোপণ করেন ও আইআইইউসি ক্যাম্পাস পরিদর্শন করেন।

ওরিয়েন্টেশন প্রোগ্রাম সঞ্চালনায় ছিলেন ড. শোয়েব উদ্দিন মক্কী ও আইএএসডব্লিউডির ভারপ্রাপ্ত পরিচালক মুহাম্মদ মাহফুজুর রহমান। আইআইইউসির ব্যাচেলর প্রোগ্রাম অটাম-২০২৪ সেশনের ওরিয়েন্টেশন অনুষ্ঠানের মাধ্যমে ১৯৫০ জন নবীন শিক্ষার্থীকে বরণ করে নেওয়া হয়।

পুরোনো সংখ্যা

শনি রবি সোম মঙ্গল বু বৃহ শুক্র
 
১০১১
১৩১৫১৬১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭৩০৩১