সর্বশেষ :

চালর্সের রেকর্ড ইনিংসে দক্ষিণ আফ্রিকাকে হোয়াইটওয়াশ করলো ওয়েস্ট ইন্ডিজ


অনলাইন ডেস্ক
প্রকাশের সময় : মে ২৭, ২০২৪ । ২:১৮ অপরাহ্ণ
চালর্সের রেকর্ড ইনিংসে দক্ষিণ আফ্রিকাকে হোয়াইটওয়াশ করলো ওয়েস্ট ইন্ডিজ

ওপেনার জনসন চালর্সের রেকর্ড ইনিংসে তিন ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজে দক্ষিণ আফ্রিকাকে হোয়াইটওয়াশ কেেরছ  স্বাগতিক ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

গতরাতে সিরিজের তৃতীয় ও শেষ টি-টোয়েন্টিতে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ৮ উইকেটে হারিয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকাকে। প্রথম টি-টোয়েন্টি ২৮ রানে এবং দ্বিতীয়টি ১৬ রানে জিতেছিলো ক্যারিবীয়রা।

এতে সিরিজ ৩-০ ব্যবধানে জিতে প্রথমবারের মত দক্ষিণ আফ্রিকাকে টি-টোয়েন্টিতে হোয়াইটওয়াশ করলো ওয়েস্ট ইন্ডিজ। দলের কয়েকজন মূল খেলোয়াড়কে ছাড়া বিশ^কাপের আগে প্রস্ততিটা ভালোভাবেই সাড়লো ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

কিংস্টনে টস জিতে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে নবম ওভারের মধ্যে দলীয়  ৫০ রান তুলতেই ৪ উইকেটে হারিয়ে বসে দক্ষিণ আফ্রিকা। শুরুতেই চাপে পড়া দক্ষিণ আফ্রিকাকে লড়াইয়ে ফেরান মিডল অর্ডারের দুই ব্যাটার ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক রাসি ভ্যান ডার ডুসেন ও ওয়াইন মুল্ডার। পঞ্চম উইকেটে ৪৯ বলে ৭৭ রানের জুটি গড়েন তারা।

৩টি চার ও ১টি ছক্কায় ২৮ বলে ৩৬ রান করা মুল্ডারকে থামিয়ে জুটি ভাঙ্গেন পেসার ওবেড ম্যাককয়। অন্যপ্রান্তে ৩০ বলে টি-টোয়েন্টিতে অষ্টম হাফ-সেঞ্চুরি তুলে ম্যাককয়ের তৃতীয় শিকার হন ডুসেন।

১টি চার ও ৫টি ছক্কায় ৩১ বলে ৫১ রান করেন ডুসেন। শেষ দিকে প্যাট্রিক ক্রুগারের ১৩ বলে ১৬ রানের সুবাদে ২০ ওভারে ৭ উইকেটে ১৬৩ রানের লড়াকু সংগ্রহ পায় দক্ষিণ আফ্রিকা। ওয়েস্ট ইন্ডিজের ম্যাককয় ৩টি, শামার জোসেফ ও গুদাকেশ মোতি ২টি করে উইকেট নেন।

১৬৪ রানের জবাবে পাওয়ার প্লেতে ৮৩ রান তোলেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের দুই ওপেনার ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক ব্রান্ডন কিং ও চালর্স। এরমধ্যে ২০ বলে টি-টোয়েন্টিতে পঞ্চম অর্ধশতক পূর্ণ করেন চালর্স।

সপ্তম ওভারের চতুর্থ বলে দলীয় ৯২ রানে বিধ্বংসী চালর্সকে থামান লেগ স্পিনার এনকাবায়োমজি পিটার। ৯টি চার ও ৫টি ছক্কায় ২৬ বলে ৬৯ রান করেন চালর্স। তার স্ট্রাইক রেট ছিলো ২৬৫ দশমিক ৩৮।

অন্তত হাফ-সেঞ্চুরির ইনিংসে ওয়েস্ট ইন্ডিজের পক্ষে টি-টোয়েন্টিতে সর্বোচ্চ স্ট্রাইক রেটের রেকর্ডের মালিক এখন চালর্স।
আগের রেকর্ডটিও ছিল চার্লসেরই। গত বছর সেঞ্চুরিয়নে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ৪৬ বলে ২৫৬ দশমিক ৫২ স্ট্রাইক রেটে ১১৮ রান করেছিলেন চালর্স।

চালর্স ফেরার পর হাফ-সেঞ্চুরির সম্ভাবনা জাগিয়ে ৪৪ রানে আউট হন কিং। ২৮ বল খেলে ২টি চার ও ৪টি ছক্কা মারেন তিনি। দলীয় ১৩০ রানে কিং ফেরার পর তৃতীয় উইকেটে ১৮ বলে অবিচ্ছিন্ন ৩৫ রান,

যোগ করে ওয়েস্ট ইন্ডিজের জয় নিশ্চিত করেন কাইল মায়ার্স ও অ্যালিক আথানাজে। ৪টি ছক্কায় মায়ার্স ২৩ বলে ৩৬ ও আথানাজে ৬ রানে অপরাজিত থাকেন। ম্যাচ সেরা হন চালর্স ও সিরিজ সেরার পুরস্কার জিতেন মোতি।

 

সুত্রঃ বাসস

পুরোনো সংখ্যা

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০৩১