সর্বশেষ :

লা লিগা: সোসিয়েদাদকে হারিয়ে দ্বিতীয় স্থানে উঠে এলো বার্সেলোনা


অনলাইন ডেস্ক
প্রকাশের সময় : মে ১৪, ২০২৪ । ৪:১৮ অপরাহ্ণ
লা লিগা: সোসিয়েদাদকে হারিয়ে দ্বিতীয় স্থানে উঠে এলো বার্সেলোনা

লামিন ইয়ামাল ও রাফিনহার গোলে রিয়াল সোসিয়েদাদকে ২-০ ব্যবধানে হারিয়ে লা লিগা টেবিলের দ্বিতীয় স্থানে উঠে এসেছে বার্সেলোনা। কাতালান প্রতিদ্বন্দ্বী জিরোনাকে বার্সা এক পয়েন্টে পিছনে ফেলেছে।

এই পরাজয়ে লা রিয়ালদের আগামী মৌসুমে ইউরোপা লিগে খেলার স্বপ্ন অনেকটাই ফিকে হয়ে গেছে। ষষ্ঠ স্থানে থাকা রিয়াল বেটিসের থেকে এখন তারা সাত পয়েন্ট পিছিয়ে রয়েছে।

গত আসরের চ্যাম্পিয়ন বার্সেলোনার এখন আর হারানোর কিছু নেই। কিন্তু হতাশাজনক মৌসুমের শেষ সপ্তাহটা যতটা সম্ভব ভাল খেলে যাওয়াই মূল লক্ষ্য। বিশেষ করে উড়তে থাকা কাতালান মিনোস জিরোনার উপরে থেকে অন্তত লিগ শেষ করতে চায় বার্সা।

ইতোমধ্যেই লা লিগা শিরোপা নিশ্চিত করা রিয়াল মাদ্রিদ রোববার তা উদযাপনও করেছে। জিরোনার কাছে এক সপ্তাহ আগে বার্সেলোনা ৪-২ গোলে পরাজিত হবার পরেই রিয়ালের শিরোপা নিশ্চিত হয়।

গতকাল ম্যাচের ৪০ মিনিটে গোল করে বার্সেলোনাকে এগিয় দেন দলের সবচেয়ে উজ্জ্বল তারকা ইয়ামাল। স্টপেজ টাইমে রাফিনহা পেনাল্টি থেকে জয় নিশ্চিত করেন।

বার্সা কোচ জাভি ম্যাচ শেষে বলেছেন, ‘লা রিয়াল সত্যিই খুব ভাল দল। এটা আমাদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি জয়। সব মিলিয়ে আমরা বেশ ভাল ম্যাচ খেলেছি।’

উরুগুইয়ান সেন্টার-ব্যাক রোনাল্ড আরাউজোকে বদলী বেঞ্চে রেখে মূল দল সাজিয়েছিলেন জাভি। পিএসজির বিপক্ষে তার লাল কার্ড চ্যাম্পিয়ন্স লিগ থেকে বার্সেলোনার বিদায় তরান্বিত করেছে। মাদ্রিদ শিরোপা জেতায় কাতালানদের এবার কো শিরোপা ছাড়াই মৌসুম শেষ করতে হচ্ছে।

আগামী মৌসুমেও দলের দায়িত্ব ধরে রাখা জাভি তার বিদায়ের সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করেছেন। আরাউজোর স্থানে তিনি ইনিগো মার্টিনেজকে খেলিয়েছেন, তার সাথে মধ্যমাঠে আরো ছিলেন পেড্রি গনজালেজ।

স্ট্রাইকার রবার্ট লিওয়ানদোস্কি তার স্বাভাবিক খেলা উপহার দিয়ে প্রতিপক্ষের উপর চাপ সৃষ্টি করে গেছেন। লা লিগার শীর্ষ গোলদাতা হিসেবে তার মৌসুম শেষ করার এখনো সুযোগ রয়েছে।

ম্যাচের শুরুতেই গোলের সুযোগ পেয়েছিল সোসিয়েদাদ। কিন্তু সুরিনামের স্ট্রাইকার শেরাল্ডো বেকারের শট কোনমতে রুখে দেন মার্ক-আন্দ্রে টার স্টেগান। যদিও এই শটের আগে তাকে প্রতিরোধ করার চেষ্টা করেছে তরুণ ডিফেন্ডার পও কুবারসি। এর পরপরই বেকার গোল পেলেও অফসাইডের কারনে তা বাতিল হয়ে যায়।

রিয়াল সোসিয়েদাদ গোলরক্ষক এ্যালেক্স রেমিরো ইকে গুনডোগানের পাস থেকে ১৬ বছর বয়সী উইঙ্গার ইয়ামালের শট রুখে দেন। প্রথমার্ধের শেষের দিকে রাফিনহার শট পোস্টে লেগে ফেরত আসে। ফিরতি বল গুনডোগান ক্রসবারের উপর বাইরে পাঠান।

এটা ছিল সোসিয়েদাদের জন্য একটি সতর্কবার্তা। কিন্তু সফরকারীরা মোটেই সাবধান হয়নি। সেই সুযোগে লিওয়ানদোস্কির কাছ থেকে গুনডোগান বল পেয়ে বাড়িয়ে দেন ইয়ামালের দিকে। ৪০ মিনিটে বার্সেলোনাকে এগিয়ে দিতে কোন ভুল করেননি ইয়ামাল। এবারের মৌসুমের এটি ইয়ামালের লিগে পঞ্চম গোল।

দ্বিতীয়ার্ধে আরো শক্তিশালী ভাবে খেলা শুরু করে বার্সেলোনা। দারুন দুটি দুরপাল্লার পাস থেকে রাফিনহা দুটি সুযোগ পেয়েও কাজে লাগাতে পারেননি। ব্রেইস মেনডেজের শট অল্পের জন্য টার স্টেগানের পাশ দিয়ে বাইরে চলে না গেলে তখনই হয়তো সমতা ফেরাতে পারতো সোসিয়েদাদ। বার্সার বদলী খেলোয়াড় ফেরান তোরেসের শট রুখে দেন রেমিরো।

ইয়ামাল একক প্রচেষ্টা ডি বক্সের মধ্যে ঢুকে ভলি করলেও তার ডিফ্লেকটেড হয়ে বাইরে চলে যায়। ইনজুরি টাইমে আলভারো ওড্রিওজোলার হ্যান্ডবলে পেনাল্টি উপহার পায় বার্সেলোনা। ভিএআর প্রযুক্তির সহায়তায় বেশ কিছুক্ষন পরীক্ষার পর পেনাল্টির নির্দেশ বহাল থাকে। রাফিনহা স্পট কিক থেকে বার্সেলোনার জয় নিশ্চিত করেন।

সোসিয়েদাদ মিডফিল্ডার বেনাট টুরিয়েনটেস বলেছেন, ‘আমরা এখান থেকে হতাশা নিয়ে ফিরে যাচ্ছি। জয়ের জন্যই এখানে এসেছিলাম। বিশেষ করে প্রথমার্ধে আমাদের সুযোগ ছিল। জয়ী হতে পারলে ইউরোপের সুযোগ টিকে থাকতো। গোল করতে না পারলে বার্সেলোনার মত দলগুলো সুযোগ নিবেই।’

ম্যাচ শেষের ১৫ মিনিট আগে লিওয়ানদোস্কিকে উঠিয়ে নেন জাভি। ১৭ গোল নিয়ে লা লিগা মৌসুমে জিরোনার আরটেম ডোভিকের চেয়ে শীর্ষ গোলদাতার তালিকায় তিন গোল পিছিয়ে আছেন এই পোলিশ তারকা। জাভির সিদ্ধান্তে খুব একটা বিস্ময় প্রকাশ করেননি লেভা।

আগামী বৃহস্পতিবার আলমেরিয়া ও শেষ ম্যাচে রোববার রায়ো ভায়োকানোর মোকাবেলা করবে বার্সেলোনা। তাদের এখন একটাই লক্ষ্য লিগ টেবিলের দ্বিতীয় স্থানে থেকে মৌসুম শেষ করা।
 

সুত্রঃ বাসস

পুরোনো সংখ্যা

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০৩১