সর্বশেষ :

হৃদরোগের যম ফুলকপি! কারও জন্য আবার বিপদের কারণ


অনলাইন ডেস্ক
প্রকাশের সময় : ডিসেম্বর ১৫, ২০২৩ । ১২:২৯ অপরাহ্ণ
হৃদরোগের যম ফুলকপি! কারও জন্য আবার বিপদের কারণ

শীত পড়তেই শাক-সবজিতে বাজার সয়লাব। তার মধ্যে অন্যতম ফুলকপি। এই সবজিটি খেতে অনেকেই ভালোবাসেন। স্বাদের যত্ন নেওয়ার পাশাপাশি ফুলকপি শরীর ভালো রাখতেও সমান উপকারী। ফুলকপি খেলে গ্যাস হয় বলে রান্নার আগে একবার ভাপ দিয়ে নেন অনেকেই।

ফুলকপিতে আছে ক্যালশিয়াম এবং ফ্লোরাইডের মতো উপাদান। হাড় এবং দাঁতের যত্ন নিতে এই দুই উপাদানের জুড়ি মেলা ভার। শীতকালে এমনিতেই ক্যালশিয়ামের ঘাটতি তৈরি হয় শরীরে। ফলে সুস্থ থাকতে শীতে প্রতিদিনের পাতে রাখতেই পারেন এই সবজি।

ফুলকপির রয়েছে বহুমুখী স্বাস্থ্যগুণ। এতে রয়েছে সালফোরাফেন নামক একটি পদার্থ। যা হৃদরোগের বিরুদ্ধে লড়তে সাহায্য করে।

এছাড়া ভিটামিন বি, সি, এবং কে ভরপুর পরিমাণে রয়েছে ফুলকপিতে। এই তিনটি উপাদান শরীরের রোগপ্রতিরোধ শক্তি বাড়ানোর পাশাপাশি আরও অনেক শারীরিক সমস্যার নিমেষে সমাধান করে। ভিটামিন এ দৃষ্টিশক্তি উন্নত করতে সাহায্য করে। ফলে চোখ সুস্থ রাখতে নিয়ম করে খেতে পারেন ফুলকপি।

তবে এই সবজিটি সবার জন্য সমান উপকারী নয়। গ্যাস-অম্বলের সমস্যা থাকলে ফুলকপি এড়িয়ে চলার পরামর্শ দিয়ে থাকেন চিকিৎসকরা। ভাপ দিয়ে খেলেও অনেক সময় অম্বল হয়ে যায়। তাই ঝুঁকি না নেওয়াই ভালো। এছাড়া আরও বেশ কিছু শারীরিক সমস্যায় ফুলকপি খাওয়া ঠিক নয় বলেই মত চিকিৎসকদের।

কাদের ফুলকপি খেলে সমস্যা হতে পারে?

১। থাইরয়েডের সমস্যা থাকলে ফুলকপি খেতে বারণ করেন চিকিৎসকরা। কারণ ফুলকপি শরীরে টি-৩ এবং টি-৪ হরমোনের পরিমাণ বাড়িয়ে দিতে পারে। এই দুটি হরমোনের পরিমাণ বেড়ে গেলে থাইরয়েডে রোগীদের সমস্যা হতে পারে। তাই যারা এই ধরনের সমস্যায় ভুগছেন, ফুলকপি এড়িয়ে চলুন।

২। ফুলকপিতে পটাশিয়ামের পরিমাণ অনেক বেশি। এই পটাশিয়াম রক্ত অত্যাধিক পরিমাণে ঘন করে তোলে। এমনকি জমাট বেঁধে যাওয়ার আশঙ্কাও থাকে। যারা উচ্চ রক্তচাপের সমস্যায় ভুগছেন, ফুলকপি তাদের জন্য ক্ষতিকর হতে পারে।

৩। কিছু খেলেই পেট ফাঁপার সমস্যায় ভোগেন? তাহলে ফুলকপি একেবারেই এড়িয়ে চলুন। ফুলকপিতে ফাইবারের পরিমাণ বেশি। ফাইবার হজমশক্তি উন্নত করলেও প্রয়োজনের অতিরিক্ত খেলে সমস্যা হতে পারে।

 

সূত্র : ঢা/টা

পুরোনো সংখ্যা

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০৩১