বিয়ে হয়নি! তাহলে পপির ছেলের বাবা কে? লিভ-টুগেদারের গুঞ্জনই কি সত্যি?


অনলাইন ডেস্ক
প্রকাশের সময় : ডিসেম্বর ১৪, ২০২৩ । ৪:৫২ অপরাহ্ণ
বিয়ে হয়নি! তাহলে পপির ছেলের বাবা কে? লিভ-টুগেদারের গুঞ্জনই কি সত্যি?

চিত্রনায়িকা পরীমনির ব্যক্তিজীবন নিয়ে আলোচনা-সমালোচনায় ভাটা পড়েছে। এখন সময় আরেক চিত্রনায়িকা সাদিকা পারভিন পপির, যিনি তিন বছর ধরে লাপাত্তা। তার দেখা মিলছে না কোথাও। আদনান উদ্দিন কামাল নামে এক ব্যবসায়ীর সঙ্গে নায়িকার বিয়ের যে খবর গত দুদিন ধরে প্রচার হচ্ছিল বিভিন্ন গণমাধ্যমে, তাও নাকি ভুয়া।

হ্যা, ব্যবসায়ী আদনান কামালই এমন দাবি করেছেন। তার বসবাস পুরান ঢাকার লালবাগে কাজী রিয়াজ উদ্দিন রোডে। তিনি বিবাহিত, সন্তানও আছে। জান্নাত গ্রুপের ম্যানেজিং ডিরেক্টর কামাল। জাহাজের ব্যবসাও রয়েছে। দুদিন ধরে খবর প্রচার হচ্ছিল, পপিকে বিয়ে করে তিনি বর্তমানে ধানমন্ডিতে থাকেন। তাদের একটি পুত্রসন্তানও হয়েছে।

কিন্তু এই খবরকে ফুঁ মেরে উড়িয়ে দিলেন পুরান ঢাকার ছেলে ব্যবসায়ী কামাল। তার দাবি, পপির সঙ্গে তার বিয়ে হওয়া বা সন্তান থাকা তো দূরে থাক, তেমন কোনো ঘনিষ্ঠ সম্পর্কই নেই। কামালের দাবি, ‘পপি আমাদের পারিবারিক বন্ধু। আমার স্ত্রীর বড় বোনের বন্ধু। সেই হিসেবে আমাদের বাসায় তার যাতায়াত ছিল, আমরাও গেছি তার বাসায়।’

কামাল বলেন, ‘গত দুই দিনে আমার কাছে কয়েক হাজার ফোন এসেছে। আমি বিরক্ত। আমাকে রীতিমতো ভাইরাল করে দিয়েছে। আমার ওয়াইফও বিষয়টি বেশ উপভোগ করছে।’ ক্ষোভপ্রকাশ করে তিনি বলেন, ‘আমি পুরান ঢাকার ছেলে। মানুষের ইজ্জত-সম্মান অনেক বড় জিনিস। নিশ্চিত না হয়ে কারও ছবি প্রকাশ করা উচিত নয়।’

পপির সঙ্গে সম্পর্কের বিষয়ে কামাল জানান, ‘২০১৮ সালে আমার ছোট বোনের বিয়েতে এসেছিলেন পপি ম্যাডাম। গায়ে হলুদের অনুষ্ঠানে শো করেছিলেন।’ তার যুক্তি, ‘শাহরুখ খানও তো বিয়েতে নাচতে যান। তাই বলে কি শাহরুখ খানের লগে ওই মেয়ের বিয়ে হয়ে যায় নাকি?’

তিনি বলেন, ‘আমরা ঢাকাইয়া মানুষ, খাওনদাওনের মানুষ। কেউ আসলে খাওনদাওন না করাইয়া ছাড়ি না। এখন সবাই মিলে যদি আমাদের ফ্যামিলি ফ্রেন্ডশিপ নিয়ে কিছু বলে, তাহলে কী বলব! পপির সঙ্গে আমার ওয়াইফের বোনের পরিচয় ২০০৪ সাল থেকে। বাসায় যাওয়া-আসা। তখন তো আমার বিয়েও হয়নি। আমার বিয়ে হয়েছে ২০১১ সালে।’

পাল্টা প্রশ্ন করে কামাল বলেন, ‘পপি ম্যাডাম কি কোথাও বলেছেন, আমি তার হাজব্যান্ড? আমার জীবনে এ ধরনের কথা কখনোই ওঠেনি। পারিবারিক বন্ধুত্বের কারণে পপির সঙ্গে আমাদের পরিচয়। তিনি আত্মীয়, বন্ধুর মতো। তিনি আমাদের বাড়িতে এসেছেন, আমরাও তার বাড়িতে গেছি। এটাকে বিয়ে পর্যন্ত নিয়ে যাওয়ার কোনো মানেই হয় না।’

তাহলে যে শোনা যাচ্ছে দুই বছর আগে পপি পুত্রসন্তানের মা হয়েছেন, নাম আয়াত, সেই সন্তানের বাবা কে? একাধিক গণমাধ্যমে সম্প্রতি এমন খবরও প্রকাশ হয়েছে, পপি বিয়ে করেননি, তবে লিভ টুগেদার সম্পর্কে ছিলেন। বিয়ের কাগজপত্র নেই বিধায় তিনি সন্তান নিয়ে প্রকাশ্যে আসতে পারছেন না। তাহলে কি এ খবরই সত্যি?

বিভিন্ন গণমাধ্যমের খবর থেকে এটাও জানা যাচ্ছে, মা-বাবাসহ পরিবারের কারও সঙ্গে দীর্ঘদিন ধরে সম্পর্ক এবং যোগাযোগ নেই পপির। নায়িকার উপর নাখোশ তার পরিবার। যে সম্পর্কে তিনি ছিলেন বা আছেন, তাতে খুশি না তার মা-বাবা-বোন। তাহলে কি বিবাহবহির্ভূত সম্পর্কে থাকার কারণেই নায়িকা সবার চক্ষ্যুসূল হয়েছেন?

এতসব প্রশ্নের উত্তর জানতে পপির পুরনো একাধিক নম্বরে ডায়াল করে সেগুলো বন্ধ পাওয়া যায়। সদ্য পাওয়া একটি নম্বরে কল ঢুকলেও নায়িকা তা রিসিভ করেননি। একাধিকবার কল দিয়ে ব্যর্থ হয়ে ক্ষুদে বার্তা পাঠিয়েও কোনো উত্তর মেলেনি। তাই, পপির বিয়ে-সম্পর্ক-সন্তানের বিষয়ে নানা প্রশ্নের উত্তর আপাতত অজানাই থাকছে।

২০২০ সালের মাঝামাঝি লাপাত্তা হয়ে যান একাধিক জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত এই নায়িকা। এর কিছুদিন আগে দেওয়া একটি টিভি সাক্ষাৎকারে পপি বলেছিলেন, ‘বিয়ে করলে লুকিয়ে করব না, সবাইকে জানিয়ে করব। আপাতত বিয়ের কোনো চিন্তা নেই। যখন করব, তখন সবাই জানতে পারবেন।’

সে সময় ভাইরাল চিত্রনায়ক জায়েদ খানের সঙ্গে পপির বিয়ের গুঞ্জন ছড়িয়ে পড়েছিল। রাজধানীর ইস্কাটনের বাসায় জায়েদ-পপির বিয়ের প্রথম বার্ষিকী পালনের ছবিও ফাঁস হয়েছিল সামাজিক মাধ্যমে। কিন্তু সে বিয়ের কথা স্বীকার করেননি তারা কেউই। এর কয়েকদিন পরই লাপাত্তা হয়ে যান পপি।

গত বছরের ২৬ জানুয়ারি অর্থাৎ, চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচনের দুদিন আগে অবশ্য হঠাৎই ফেসবুক লাইভে এসেছিলেন নায়িকা। সেখানে তিনি জায়েদ খানের বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ করেন। বলেন, জায়েদ খান নাকি তার বুকে পিস্তল ঠেকিয়ে নানা ভয়ভীতি দেখিয়েছিলেন। যেই পিস্তল তিনি পপির কাছ থেকে টাকা নিয়েই কিনেছিলেন।

এরপর শিল্পী সমিতির নির্বাচনের পর চিত্রনায়িকা নিপুণ আক্তার গণমাধ্যমকে জানিয়েছিলেন, সমিতির সাধারণ সম্পাদক পদ নিয়ে যে মামলা চলছে, উচ্চ আদালতের রায় যদি তার পক্ষে যায়, তবেই প্রকাশ্যে আসবেন পপি। রায় নিপুণের পক্ষে গেছে বছর খানেক আগে, কিন্তু পপি প্রকাশ্যে আসেননি। কবে আসবেন, তাও অনিশ্চিত।

 

সূত্র : ঢা/টা

পুরোনো সংখ্যা

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০৩১