সর্বশেষ :

শীতে কাপছে রংপুরের মানুষ


মোশারফ হোসেন, কাউনিয়া (রংপুর) প্রতিনিধি
প্রকাশের সময় : ডিসেম্বর ১০, ২০২৩ । ৭:২৪ অপরাহ্ণ
শীতে কাপছে রংপুরের মানুষ

বাহে জারোত হাত-পাও নুলা হয়া যাবার নাগছে। কম্বল দিয়া জার ঠেকপের নাগছে না। ছওয়া-পওয়াগুলা কাহিল হয়া পরছে।এ রকম নরম শুরে ব্যক্ত করলেন কাউনিয়া বালাপাড়া ইউনিয়নের রাজেন্দ্র বাজার এলাকার আদুরী তিনি বালাপাড়া ইউনিয়ন পরিষদে এসেছিলেন শীতবস্ত্রের খোঁজে।

এ সময় ইউপি চেয়ারম্যান আনছার আলী জানান, আমার ইউনিয়নে ৩০-৪০ হাজার মানুষের বসবাস। আমি ইউনিয়ন পরিষদ থেকে কিছু কম্বল বিতরণ করার চেষ্টায় আছি। মানুষের চাপ সামাল দিতে পারছি না। বেসরকারি সংস্থা ও ধনাঢ্য ব্যক্তিরা এগিয়ে যদি না আসে তাহলে আমার ইউনিয়নের হতদরিদ্র মানুষরা কোথা থেকে শীতবস্ত্র পাবে।

দারিদ্র্যতার কারণে এমনিতেই ঢাকা এবং অন্যান্য জেলাগুলোতে গিয়ে যারা কাজ করতো তাদের বেশির ভাগ লোক কাজ না থাকায় বাড়িতে ফিরে বসে আছে। এরকম অবস্থা ইউনিয়নের বেশিরভাগ ওয়ার্ড গুলোতে।

গতবছর অনেকে কম্বল পেলেও সামান্য কম্বলে শীত নিবারণ করতে পারছে না। ফলে ভীষণ ঠাণ্ডায় দিন ও রাত কাটছে তাদের।বিকাল হলেই তীব্র ঠান্ডা হাওয়ায় বাইরে বের হওয়া কষ্টসাদ্ধ। সন্ধ্যার পর থেকেই ফোঁটা ফোঁটা বৃষ্টির মতো ঝড়তে থাকে শিশির। সকালটা ঘনকুয়াশার চাদরে ঢাকা থাকায় কৃষক ও দিনমজুরদের মাঠে কাজ করতে ভীষণ সমস্যা হচ্ছে। অসুস্থ হয়ে পড়ছেন অনেকে। হঠাৎ করেই আবহাওয়া নিম্নগামী হওয়ায় বিপাকে পড়েছে নারী, শিশু ও বৃদ্ধরা। বাড়ছে কাউনিয়া হাসপাতালে শীতজনিত রোগী। মৃদু শৈত্যপ্রবাহের ফলে হাসপাতালে ডায়রিয়া ও নিউমোনিয়া রোগীর সংখ্যা বাড়ছে। তবে রোগীরা ভালো আছে।

কুড়িগ্রাম রংপুর আবহাওয়া ও কৃষি পর্যবেক্ষণাগারের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তারা জানান, এরকম অবস্থা ২-৩ দিন থাকতে পারে।

পুরোনো সংখ্যা

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০৩১