টেকনাফে মানবাধিকার দিবস পালিত, সচেতনতা বৃদ্ধির আহ্বান


জয়নুল আবেদীন, কক্সবাজার
প্রকাশের সময় : ডিসেম্বর ৮, ২০২৩ । ৭:৪৫ পূর্বাহ্ণ
টেকনাফে মানবাধিকার দিবস পালিত, সচেতনতা বৃদ্ধির আহ্বান

কক্সবাজারের টেকনাফ মেমোরিয়াল কলেজের হল রুমে মানবাধিকার দিবস উপলক্ষে বৃহস্পতিবার সকাল ১১ ঘটিকার সময়সচেতনতা বৃদ্ধিমূলক সভা অনুষ্ঠিত হয়। উন্মুক্ত আলোচনা বক্তারা তাদের গুরুত্বপূর্ণ মতামত তুলে ধরেন।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন অধ্যক্ষ,আ ন ম মোঃতৌহিদুল মাশেক ও অতিথি হিসেবে উপস্তিতি ছিলেন তরুণ রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব, ক্রীড়া প্রেমি ও সমাজ সেবক মোঃ তারেক মাহমুদ রনি। সচেতনতা সভার সঞ্চালনা করেন কোস্ট ফাউন্ডেশনের সহকারী পরিচালক এবং পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশন উপস্থাপন করেন স্পোর্টস কো-অর্ডিনেটর। এছাড়াও শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে মানবাধিকার বিষয়ে বক্তৃতা প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়।

কাঞ্জর পাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ রফিকুল ইসলাম বলেন, আজকের বক্তব্য প্রতিযোগিতা খুবই অর্থবহ ছিলো এবং সকল শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণ করেছিলেন।  মানবাধিকার প্রতিষ্ঠা করতে হলে আমাদের কার্যক্রমের মধ্যে অন্যদের  ক্ষতি হচ্ছে কিনা তা দেখতে হবে।

ডাঃ আবু বকর আল মামুন বলেন, আপনারা খুবই ভাগ্যবান এই জন্য যে কলেজ পর্যায়ে আপনারা মানবাধিকার সম্পর্কে জানতে পারছেন যা আমরা জেনেছি ভার্সিটি জীবনে এ জন্য কোস্ট ফাউন্ডেশনকে অসংখ্য ধন্যবাদ।

কক্সবাজার নিউজের সিনিয়র সাংবাদিক মোঃ ইমাম খায়ের বলেন, আপনাদের ভবিষ্যৎ চিন্তা করতে গেলে   বাক্সের বাহিরে চিন্তা করতে হবে,  নিজের পাশাপাশি অন্যের জনের অবস্থাকে গুরুত্ব দিতে হবে, তা হয়লে পৃথিবীর সর্বত্র মানবাধিকারের জয়গান শুনতে পারবো।

টেকনাফ উপজেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি নুরুল হোসাইন বলেন, এই বয়স থেকে যদি আমরা ছাত্রদের মধ্যে মানবাধিকারের বীজ বপন করতে পারি তাহলে আমাদের সমাজের সকল প্রকার অনৈতিক কর্মকান্ডের অবসান হবে। তিনি সন্তানদের তাদের মা-বাবার প্রতি আরো যত্নবান হওয়ার অনুরোধ করেন।

যুব সংগঠক তারেক মাহমুদ রনি বলেন, মানবাধিকারের জন্য আমরা ১৯৭১ সালে যুদ্ধ করেছিলাম আর এর ফল আমরা আজ স্বাধীন বাংলাদেশের নাগরিক।

কোস্ট ফাউন্ডেশনের পরিচালক মোস্তফা কামাল আকন্দ বলেন, আপনারা এখনো ছাত্র আপনাদের দিকে তাকিয়ে আছে বিশ্ব, আপনারা পারেন আগামীর প্রজন্মকে সুন্দর এবং মানবাধিকারবান্ধব একটি পৃথিবী উপহার দিতে।

অধ্যক্ষ আ ন ম তৌহিদুল মাশেক বলেন, যেখানে অধিকার আছে সেখানে কর্তব্য আছে। নিজের অধিকার প্রতিষ্ঠা করতে গিয়ে অন্যের অধিকার  ক্ষুন্ন হচ্ছে কিনা তা দেখতে হবে। অন্যথায় মানবাধিকার প্রতিষ্ঠা হবে না।

এতে অত্র কলেজের স্থানীয় মোট ১৭৫ জন ছাত্র/ছাত্রী, শিক্ষক প্রতিনিধি, সাংবাদিক, প্রকল্পের সামাজিক সম্প্রীতি কমিটির সদস্য, এনজিও প্রতিনিধি এবং স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

পুরোনো সংখ্যা

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০৩১