নওগাঁর লাইলী হত্যার রহস্য উদঘাটন ও আসামী গ্রেফতার


সবুজ হুসাইন, জেলা প্রতিনিধি নওগাঁ
প্রকাশের সময় : ডিসেম্বর ৭, ২০২৩ । ৬:০৩ অপরাহ্ণ
নওগাঁর লাইলী হত্যার রহস্য উদঘাটন ও আসামী গ্রেফতার

ঘাতক স্বামী কর্তৃক চাতাল শ্রমিক স্ত্রী লাইলী বেগমকে জবাই করে খুনের ঘটনায় আসামী গ্রেফতার, হত্যাকান্ডের রহস্য উদঘাটন এবং হত্যা কাজে ব্যবহৃত রক্তমাখা বটি উদ্ধার করে সাংবাদিকদের নিয়ে প্রেস ব্রিফিং করেছে নওগাঁর পুলিশ সুপার মুহাম্মদ রাশিদুল হক ।

 

তিনি প্রেস ব্রিফিং এ সাংবাদিকদের বলেন, গত ইং ০২/১২/২০২৩ তারিখ রাত্রী অনুমান ০৯.০০ ঘটিকার পর হতে ইং ০৩/১২/২০২৩ তারিখ সকাল অনুমান ০৬.০০ ঘটিকার পূর্বে যে কোন সময় মহাদেবপুর থানাধীন বাগাচারা গ্রামস্থ আব্দুর রহমানের ভাড়া চাতালের শ্রমিকদের থাকার উত্তর দুয়ারী একটি ঘরে পূর্ব পরিকল্পিতভাবে দাম্পত্য কলহ বিবাদের জের হিসাবে আসামী মোঃ আমজাদ হোসেন (৫০), পিতা-মৃত ছমির মণ্ডল, সাং-পার এনায়েতপুর, থানা-মান্দা, জেলা-নওগাঁ ধারালো বটি দিয়ে গলার মাঝখানের বাম পাশে আঘাত করে গুরুতর রক্তাক্ত জখম পূর্বক ভিকটিম স্ত্রী লাইলী বেগম (৪৫), স্বামী-মোঃ আমজাদ হোসেন, পিতা-মৃত মজিবর রহমান, সাং-শিয়াটা, থানা-মান্দা, জেলা-নওগাঁকে জবাই করে হত্যা করে পালিয়ে যায়। এই চাঞ্চল্যকর হত্যাকান্ডের ঘটনায় ভিকটিম লাইলী বেগমের ভাই মোঃ আব্দুস সামাদ প্রামানিক (৬০), পিতা-মৃত মজিবর রহমান, সাং-শিয়াটা, থানা- মান্দা, জেলা-নওগাঁ বাদী হয়ে থানায় এজাহার দায়ের করলে মহাদেবপুর থানার মামলা নং-০২, তাং-০৩/১২/২০২৩ খ্রিঃ, ধারা-৩০২/৩৪ পেনাল কোড রুজু হয়।

 

চাঞ্চল্যকর হত্যা মামলা রুজুর পর হত্যা মামলার মূল আসামী গ্রেফতার এবং মামলার রহস্য উদঘাটনে পুলিশ তৎপর হয়। পুলিশ সুপার মুহাম্মদ রাশিদুল হক নওগাঁর প্রত্যক্ষ নির্দেশনায়, মহাদেবপুর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জায়ব্রত পাল এর নেতৃত্বে, মহাদেবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ মোজাফফর হোসেন, মামলার তদন্তকারী অফিসার এসআই জিয়াউর রহমান সহ মহাদেবপুর থানার অফিসার ও ফোর্সের সমন্বয়ে অভিযান পরিচালনার জন্যে একটি শক্তিশালী চৌকশ পুলিশ টিম গঠন করে। উক্ত পুলিশ টিম বিশ্বস্ত সোর্সের মাধ্যমে ইং ০৬/১২/২০২৩ তারিখ রাত্রী অনুমান সন্ধ্যা ০৭.৩০ ঘটিকার সময় বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে ঘাতক স্বামী মামলার প্রধান আসামী আমজাদ হোসেন (৫০), পিতা-মৃত ছমির মন্ডল, সাং- পার এনায়েতপুর, থানা-মান্দা, জেলা-নওগাঁকে নওগাঁ শহর থেকে গ্রেফতার করে। এছাড়াও হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত রক্তমাখা বটি উদ্ধার করা হয়।

 

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে খুনি আমজাদ হোসেন হত্যাকান্ডের কথা স্বীকার করে। দাম্পত্য জীবনের কলহ বিবাদের কারণে ইং ০৩/১২/২০২৩ তারিখ রাত্রী অনুমান ০২.০০ ঘটিকার সময় চাতালে তাদের শয়ন কক্ষে ধারালো বটি দিয়ে জবাই করে এই হত্যাকান্ডটি সংঘটিত করেছে মর্মে জানা যায় ।

পুরোনো সংখ্যা

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০৩১