বগুড়ায় শীতকালীন সবজির বাজার দর উঠানামা


জাহিদ হাসান, বিশেষ প্রতিনিধি বগুড়া
প্রকাশের সময় : ডিসেম্বর ৪, ২০২৩ । ৫:০৩ অপরাহ্ণ
বগুড়ায় শীতকালীন সবজির বাজার দর উঠানামা

শীতকালে বগুড়া সহ আশপাশের সকল জেলার বিভিন্ন রকম সবজিতে বাজার সয়লাব হয়ে যায়। শীতকালীন সকল সবজির পুষ্টি, স্বাদ ও উপকারিতায় অনেক। শীতের প্রতিটি সবজিতেই প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন, মিনারেল, অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট থাকে। তাই সুস্থ ও সুন্দর থাকার জন্য এ সকল শাকসবজি প্রচুর পরিমাণে গ্রহণ করা উচিত।

বগুড়া শহরের দুটি বড়বাজার একটি রাজাবাজার ও অন্যটি ফতেহ আলী বাজার। গত সপ্তাহের শীতকালীন সবজির দাম একটু কম থাকলেও দুদিনের ব্যবধানে বর্তমানে বৃদ্ধি পেয়েছে।

সোমবার (৪ ডিসেম্বর) রাজাবাজারে সরজমিনে  শীতকালীন সবজির বাজার ঘুরে দেখা যায়, লাউ ৩০ টাকা কেজি, কাঁচা পেঁপে ২০/২৫ টাকা কেজি, ধনিয়া পাতা গত সপ্তাহ থেকে একটু বেশি ৪০ টাকা কেজি, টমেটো ৬০ টাকা কেজি, শসা ৪০ টাকা কেজি, সিম বিক্রি হচ্ছে ৪৫ থেকে ৫০ টাকা কেজি,ফুলকপি গত  সপ্তাহের তুলনা একটু বেশি ৪০ টাকা কেজি, শীতকালীন পাতাপিয়াজ ৬০ টাকা কেজি, নতুন আলুর দাম তুলনামূলক বেশি পাকড়ি আলু ১২০ টাকা কেজি,ও হলেনডার ৯০ টাকা কেজি,পুরাতন আলু ৪০ ও ৭০ টাকা কেজি, বেগুন ৫০ টাকা কেজি, পাতাকপি পার পিস ৩০ টাকা, মুলা বিক্রি করতে দেখা গেছে ১০ থেকে ১৫ টাকা কেজি, গাজর ও কচুর বই ১২০ টাকা কেজি, ঢেঁড়স ৫০ টাকা কেজি, কাঁচামরিচ ৫০ টাকা কেজি, পুরাতন পেঁয়াজ বিক্রি করতে দেখা গেছে ১৩০ ও নতুন ১২০,শুকনা মরিচ ৪৫০ থেকে ৪৮০  টাকা কেজি,আদা ও রসুন পাইকারি দরে ১৬৫ টাকা কেজি  এবং খুচরা বাজারে ২০০ টাকা কেজি বিক্রয় করতে দেখা গিয়েছে।

অপরদিকে ফতেহ আলী বাজারে গরুর মাংস বিক্রি করতে দেখা গেছে ৭০০ টাকা কেজি, এবং খাসির মাংস ৯০০ টাকা কেজি।

মুরগির বাজারে ঘুরে দেখা যায়, বয়লার মুরগি ১৬০ টাকা, সোনালী বড় মুরগি ২৬০ টাকা, সোনালী ছোট মুরগি ২৬০ টাকা ও লেয়ার ২৭০ টাকা থেকে ২৮০ টাকা কেজি।  পোলট্রি মুরগির ডিমের হালি গত সপ্তাহের তুলনায়  দুই দিনে  বৃদ্ধি হয়ে  ৪০ টাকা হালি বিক্রি করতে দেখা গেছে।

এদিকে মাছের বাজার ঘুরে দেখা যায়, আকারভেদে, ইলিশ ৯০০ টাকা থেকে শুরু করে ১৩০০ টাকা যা গত সপ্তাহের তুলনায় কম, গ্লাস কাপ ২৩০ থেকে ২৪০, ব্রিকেট ২৩০ থেকে ২৪০, পাঙ্গাস ১৪০ থেকে ১৫০, কাতল ২৮০ থেকে ৩০০ টাকা, ছোট মাছগুলো গত সপ্তাহের তুলনায় একটু কম দামে বিক্রি করতে দেখা গেছে।

শীতকালের পিঠা বানানোর প্রধান আকর্ষণ হচ্ছে খেজুরের গুড় বগুড়াতে খেজুরের গুড় বিক্রি করতে দেখা গেছে ১৮০ টাকা থেকে ২২০ টাকা কেজি। এছাড়াও মাসকালাই বিক্রি করতে দেখা গেছে ২৮০ টাকা কেজি , ও কুমোরবড়ি  ৪০০ এবং ৫০০ টাকা কেজি।

মসলার বাজারে  ঘুরে দেখা যায়,সয়াবিন তেল প্রতি লিটার ১৫৫ থেকে ১৬০ টাকা কেজি সরিষার তেল ১৮০ টাকা কেজি, আতপ চাউল প্রতি কেজি ১১০ টাকা, আটা প্রতি কেজি ৪৫ টাকা, চিনি প্রতি কেজি ১৩৮ টাকা, মুসুরের ডাল দেশি প্রতি কেজি ১৩৫ টাকা, মসুরের ডাল বড় ১৯০ টাকা,মুগ ডাল প্রতি কেজি ১৪০ টাকা, খেসারির ডাল প্রতি কেজি ৯০ টাকা,বুটের ডাল  প্রতি কেজি ৯৫ টাকা, মটর ডাল প্রতি কেজি ৬০ টাকা ,ছোলা বুট প্রতি কেজি ৮৫ টাকা, বেসন প্রতি কেজি ৮০ টাকা, হলুদের গুড়া প্রতি কেজি ৩০০ টাকা, মরিচের গুঁড়া প্রতি কেজি ৫০০ টাকা,জিরা ১১৫০ টাকা কেজি, সাদা এলাচ ২৪০০, টাকা কেজি, কালো এলাচ ১৮০০ টাকা কেজি, দারচিনি ৫০০ টাকা কেজি বিক্রয় করতে দেখা গেছে।

নাম না প্রকাশে ইচ্ছুক এক সবজি বিক্রেতা বলেন শীতকালীন সবজির দাম কমলে সে তুলনায় ক্রেতাদের দেখা যায় না। অপরদিকে বাজারের সবজির মূল্য দিনভেদে একাক স্হানে  একেক রকম যেতে পারে।

প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত বর্তমান বাজার এর মূল্য তুলে ধরা হলো।

পুরোনো সংখ্যা

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০৩১