সুনামগঞ্জ-৫ আসনে আওয়ামীলীগসহ বিভিন্ন দলের ১১জন প্রার্থীর ১২টি মনোনয়নপত্র দাখিল


ফজল উদ্দিন, ছাতক (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি
প্রকাশের সময় : নভেম্বর ৩০, ২০২৩ । ১১:১১ অপরাহ্ণ
সুনামগঞ্জ-৫ আসনে আওয়ামীলীগসহ বিভিন্ন দলের ১১জন প্রার্থীর ১২টি মনোনয়নপত্র দাখিল
প্রতীকী ছবি

আসন্ন ৭ জানুয়ারি দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সুনামগঞ্জ-৫ (ছাতক-দোয়ারাবাজার) আসনে আওয়ামীলীগসহ বিভিন্ন দলের ১১জন প্রার্থীর ১২টি মনোনয়নপত্র দাখিল করা হয়েছে।

সুনামগঞ্জ রিটার্নিং কর্মকর্তা ও জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে ৪জন, দোয়ারাবাজারের সহকারি রিটার্নিং কর্মকর্তা ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে ৩জন এবং ছাতক সহকারি রিটার্নিং কর্মকর্তা ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে ৪জন প্রার্থীর ৫ মনোনয়ন পত্র দাখিল করা হয়েছে। প্রত্যেক প্রার্থী নিজ নিজ মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন।

জানা যায়, সুনামগঞ্জ রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয়ে মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন বাংলাদেশ ন্যাশনালিষ্ট পার্টি বিএনএফ’র প্রার্থী আশরাফ হোসেন, জাকের পার্টির প্রার্থী শেখ ইয়াকুব আলী, জাতীয় পার্টির প্রার্থী এড‌ভো‌কেট নাজমুল হুদা হিমেল এবং জাতীয় পার্টি (জেপি)’র প্রার্থী এড‌ভো‌কেট মনির উদ্দিন।

ছাতক উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও সহকারি রিটার্নিং কর্মকর্তা গোলাম মোস্তাফা মুন্নার কাছে ৪জন প্রার্থীসহ ৫টি মনোনয়ন পত্র দাখিল করেছেন। বিকেলে দলীয় নেতা-কর্মীদের সাথে নিয়ে সহকারি রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে মনোনয়ন পত্র দাখিল করেন বর্তমান সংসদ সদস্য, আওয়ামীলীগ মনোনীত নৌকার প্রার্থী মুহিবুর রহমান মানিক। পরে তিনি দোয়ারাবাজারেও দলীয় মনোনয়নপত্র দাখিল করেন। এ দিন ছাতক, দোয়ারাবাজার ও ছাতক পৌর আওয়ামীলীগের সিনিয়র নেতৃবৃন্দকে সাথে নিয়ে সহকারি রিটার্নিং কর্মর্কতার কাছে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন পত্র দাখিল করেন সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের প্রথম যুগ্ম সাধারন সম্পাদক, কেন্দ্রিয় ছাত্রলীগের সাবেক সদস্য, শামীম আহমদ চৌধুরী। মনোনয়ন দাখিল করেছেন বাংলাদেশ সাংস্কৃতিক মুক্তিজোট থেকে সাচ্চু বিশ্বাস। তিনি ছিলেন জাতীয় পার্টির সক্রিয় একজন সদস্য। এ ছাড়া গণফোরাম এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে দু’টি মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন প্রবাসী কমিউনিটি নেতা আইয়ূব করম আলী।

এছাড়া দোয়ারাবাজার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও সহকারি রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন বাংলাদেশ সুপ্রিম পার্টি বিএসপি থেকে আবু সালেহ, ন্যাশনাল পিপলস পার্টি এনপিপি থেকে আজিজুল হক এবং কৃষক শ্রমিক জনতা লীগ থেকে মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন আবদুল জলিল।

জানা গেছে, এখানের প্রার্থী আবু সালেহ ছিলেন জাতীয় পার্টির কেন্দ্রিয় কমিটির সদস্য। দলীয় মনোনয়ন না পেয়ে তিনি বাংলাদেশ সুপ্রিম পার্টি বিএসপি থেকে মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন। এ আসনে জাতীয় পার্টির মনোনীত প্রার্থী এডভোকেট নাজমুল হুদা হিমেল গেল নির্বাচনে অংশ নিয়ে ৫৫১ ভোট পেয়েছিলেন। জাতীয় পার্টির সক্রিয় একজন নেতা ছিলেন সাচ্চু বিশ্বাস। তিনি এবার বাংলাদেশ সাংস্কৃতিক মুক্তিজোট থেকে মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন। তিনিও নতূন মুখ। এর আগে এ আসনে নির্বাচনে অংশ নিয়েছিলেন গনফোরামের মনোনীত প্রার্থী প্রবাসী কমিউনিটি নেতা আইয়ুব করম আলী, বিএনএফ’র প্রার্থী আশরাফ হোসেন।

পুরোনো সংখ্যা

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০