গোকুলে জমিজমা সংক্রান্ত জেরে বীর মুক্তি যোদ্ধা আমজাদ হোসেনকে মারপিট


নুরনবী রহমান, স্টাফ রিপোর্টার
প্রকাশের সময় : নভেম্বর ২৮, ২০২৩ । ৯:২১ অপরাহ্ণ
গোকুলে জমিজমা সংক্রান্ত জেরে বীর মুক্তি যোদ্ধা আমজাদ হোসেনকে মারপিট

বগুড়া সদরের গোকুলে জমিজমা সংক্রান্ত জের ধরে একজন বীর মুক্তি যোদ্ধাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে মারপিট করে রক্তাক্ত জখম, হাসপাতালে ভর্তি, থানায় অভিযোগ, ব্যবস্থা নেওয়ার দাবী।

বগুড়া সদর থানার অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, গোকুল ইউনিয়নের গোকুল মধ্যপাড়া গ্রামের মৃত ইসারত উল্লাহ মন্ডলের  পুত্র বীর মুক্তি যোদ্ধা আমজাদ হোসেন গত ১৮বছর পূর্বে তার আপন বড় ভাই আলতাফ আলী মন্ডলের কাছে থেকে ২শতাংশ জমি ক্রয় করে সম্পূর্ন টাকা পরিশোধ করে। তখন থেকেই জমিটি দলিল করে দেওয়ার জন্য আমজাদ হোসেন তার ভাইকে বললে সে আজ দিব, কাল দিব বলে কাল ক্ষেপন করে আসছে। গত ২৭/১১/২৩ ইং তারিখে গোকুল বন্দরে মুক্তি যোদ্ধা আমজাদ হোসেন তার ভাইকে দেখা পেয়ে বলে জমিটি কি আমাকে দলিল করে দিবা না? তখন সে ক্ষিপ্ত হয়ে আমজাদকে গালিগালাজ করতে থাকে, এতে আমজাদ হোসেন প্রতিবাদ করলে আলতাফ হোসেন তাকে দেখে নিবে বলে হুমকি প্রদান করে বাড়ী এসে তার সন্তানদেরকে এবিষয়ে বললে তারা ক্ষিপ্ত হয়ে থাকে এবং আমজাদের বাড়ীর পাশের তার নিজস্ব জমির বিভিন্ন প্রকার ফল ও সবজির গাছ আলতাফ ও তার ছেলেরা কেটে তছনছ করে প্রায় ১০ হাজার টাকার ক্ষতি সাধন করে। আমজাদ বাড়ী এসে দুপুরে  খাবার খেতে বসলে সে সংবাদ পেয়ে আলতাফের নির্দেশে তার ছেলে জাহাঙ্গীর, আব্দুর রাজ্জাক ও খোকন দেশীয় অস্ত্র রাম দা  লকঠিশোঠা নিয়ে আমজাদের বাড়ির ভিতর অনধিকার প্রবেশ করে তার শরীরের বিভিন্ন স্থানে বেধড়ক মারপিট করে রক্তাক্ত জখম করে বলেও আমজাদ সাংবাদিকদেরকে জানান। এসময় তার ডাক চিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে এসে তাকে চিকিৎসার জন্য বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করে।

এঘটনায় বীর মুক্তি যোদ্ধা আমজাদ হোসেন বাদী হয়ে উপরোক্ত ৪জনকে বিবাদী করে ২৭/১১/২৩ ইং তারিখে বগুড়া সদর থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন এবং দোষীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য প্রশাসনের প্রতি জোর দাবী জানান।

পুরোনো সংখ্যা

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০