এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল পেয়ে বাঁধভাঙা উল্লাসে মেতেছেন শিক্ষার্থীরা


অনলাইন ডেস্ক
প্রকাশের সময় : নভেম্বর ২৬, ২০২৩ । ৩:৩৭ অপরাহ্ণ
এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল পেয়ে বাঁধভাঙা উল্লাসে মেতেছেন শিক্ষার্থীরা
যোগ্য নাগরিক হিসেবে গড়ে উঠে দেশের কল্যাণে কাজ করার প্রত্যয় জানান শিক্ষার্থীরা। আর সম্মিলিত প্রচেষ্টায় ভালো ফল অর্জন হয়েছে বলে মনে করেন শিক্ষকরা। এদিকে, জিপিএ ফাইভ ও পাসের হারে এবারও ছেলেদের চেয়ে এগিয়ে মেয়েরা।
 
শিক্ষার্থীদের বাঁধভাঙা এ উচ্ছ্বাস স্বপ্নজয়ের। বারো বছরের নানা চ্যালেঞ্জ আর বাধা মাড়িয়ে অবশেষে এই অর্জন স্পর্শ করার আনন্দ যেন ঢের বেশিই। প্রত্যাশা আর প্রাপ্তির মেলবন্ধনের এই দৃশ্য যেন তারই প্রতিচ্ছবি।
 
দেশব্যাপী বিরোধী দলের ডাকা অবরোধসহ নানা প্রতিবন্ধকতার পরেও একটু যেন ভাটা পড়েনি আনন্দ উৎসবে ঢাকার কলেজে কলেজে। রোববার (২৬ নভেম্বর) সকালে ফলাফল হাতে পেয়ে নেচে গেয়ে উদযাপন করেন শিক্ষার্থীরা।
 
তারুণ্যের প্রতিনিধিদের লক্ষ্য এখন উচ্চ শিক্ষার। তাদের চোখে মুখে স্বপ্ন এখন বিশ্বজয়ের। অর্জনের মাহেন্দ্রক্ষণে উচ্ছ্বাস, আনন্দের ভিড়েও শিক্ষার্থীরা ভোলেননি অভিভাবক আর শিক্ষাগুরুদের অবদানের কথা। জানান কৃতজ্ঞতাও।
 
সন্তানদের অর্জনে গর্বিত অভিভাবকরাও। তারা জানাল, সন্তানদের নিয়ে তাদের দিগন্তজুড়া স্বপ্নের কথা।
 
শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের সমন্বিত প্রচেষ্টায় ভালো ফলাফল অর্জন সম্ভব হয়েছে বলে জানান ভিকারুন নিসা নুন স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ মিসেস কেকা রায় চৌধুরী।
 
এবার পাসের হারে ছেলেদের চেয়ে এগিয়ে মেয়েরা।
 
চলতি বছরের উচ্চমাধ্যমিক সার্টিফিকেট (এইচএসসি) ও সমমান পরীক্ষার ফলাফলে, গড় পাসের হার ৭৮ দশমিক ৬৪ শতাংশ। ৯টি সাধারণ শিক্ষাবোর্ড, মাদ্রাসা ও কারিগরি শিক্ষাবোর্ডের গত বছরের চেয়ে এবার পাসের হার কমেছে ৭ দশমিক ৩১ শতাংশ। গত বছর পাসের গড় হার ছিল ৮৫ দশমিক ৯৫ শতাংশ।
 
আজ বেলা ১১টায় ওয়েবসাইট ও স্ব-স্ব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ফল প্রকাশ করা হয়। এর আগে সকাল ১০টায় এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষার ফলের সারসংক্ষেপ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতে তুলে দেয়া হয়।
 
ফলাফল বিশ্লেষণে দেখা যায়, পাসের হারেও এগিয়ে ছাত্রীরা। ছাত্রীদের পাসের হার ৮০ দশমিক ৫৭ শতাংশ। ছাত্রদের পাসের হার ৭৬ দশমিক ৭৬ শতাংশ। জিপিএ-৫ পেয়েছেন ৯২ হাজার ৫৯৫ শিক্ষার্থী। গত বছর জিপিএ-৫ পেয়েছিলেন ১ লাখ ৭৬ হাজার ২৮২ জন।
 
ঢাকা বোর্ডে পাসের হার ৭৯ দশমিক ৪৪ শতাংশ, বরিশাল বোর্ডে ৮০ দশমিক ৬৫ শতাংশ, চট্টগ্রামে ৭৩ দশমিক ৮১ শতাংশ। কুমিল্লায় পাসের হার ৭৫ দশমিক ৩৪ শতাংশ, রাজশাহীতে ৭৮ দশমিক ৪৫ শতাংশ, সিলেট বোর্ডে ৭১ দশমিক ৬২ শতাংশ, দিনাজপুরে ৭০ দশমিক ৪৪ শতাংশ, ময়মনসিংহে ৭০.৪৪ শতাংশ ও যশোরে ৬৯ দশমিক ৮৮ শতাংশ বলে জানা গেছে।
 
গত ১৭ আগস্ট শুরু হয় এ বছরের এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা। এ বছর দেশের ১১টি শিক্ষা বোর্ডের অধীনে এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষায় অংশ নেন ১৩ লাখ ৪৪ হাজার ৩৪২ জন শিক্ষার্থী। তাদের মধ্যে ছাত্র ৬ লাখ ৮৮ হাজার ৮৮৭ জন এবং ছাত্রী ৬ লাখ ৭০ হাজার ৪৫৫ জন। সারাদেশে মোট কেন্দ্র সংখ্যা ছিল ২ হাজার ৬৫৮টি এবং মোট শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ৯ হাজার ১৬৯টি। এর আগে ২০২২ সালে সব বোর্ড মিলিয়ে পরীক্ষার্থী ছিলেন ১২ লাখ ৩ হাজার ৪০৭ জন। সেই হিসাবে এবার পরীক্ষার্থী বেড়েছে এক লাখ ৫৫ হাজার ৯৩৫ জন। 

সূত্র: স/টি

পুরোনো সংখ্যা

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০