বিরল প্রতিভার কণ্ঠ জাদুকর ঝিনাইদহের নোমান


আনোয়ার হোসেন, ঝিনাইদহ জেলা প্রতিনিধি
প্রকাশের সময় : নভেম্বর ২৪, ২০২৩ । ১:৫৭ পূর্বাহ্ণ
বিরল প্রতিভার কণ্ঠ জাদুকর ঝিনাইদহের নোমান

কণ্ঠ জাদুকর ঝিনাইদহের নোমান দেখে একদমই বোঝার উপায় নেই ছেলেটির কণ্ঠেই রয়েছে জাদু। যার-তার ভাষা হুবহু নকল (মিমিক্রি) করে ফেলতে পারেন যখন তখন। তার জাদুকরী কণ্ঠ শুনে মাতোয়ারা ছেলে-বুড়ো সকলেই। এই বিস্ময়কর যুবকের নাম আব্দুল্লাহ আল নোমান। পেশায় তিনি একজন স্কুলশিক্ষক। ঝিনাইদহ ইসলামিক আইডিয়াল স্কুলের প্রধান শিক্ষক। কিন্তু মিমিক্রি করার এই বিরল প্রতিভা দেশের গণ্ডি পেড়িয়ে বিদেশেও বেশ সমাদৃত হয়েছে। তাই তাকে নিয়ে জেলাবাসীও গর্বিত।
নোমান ঝিনাইদহ শহরের আকরামুল হক ও নাসরিন নাহার দম্পতির দুই ছেলের মধ্যে বড়। তিনি মালয়েশিয়ান কুয়লালামপুর ইউনিভার্সিটি অফ আর্টস থেকে ডিপ্লোমা করেছেন।

ঝিনাইদহ ইসলামিক আইডিয়াল স্কুলে যেয়ে দেখা যায়, আব্দুল্লাহ আল নোমান ক্লাস নিচ্ছেন। আর বাচ্চারা আনন্দ নিয়ে খেলার ছলে পড়া শিখছে। ক্লাসে বিভিন্ন জনপ্রিয় কার্টুন চরিত্রের কণ্ঠ হুবহু নকল করে বলে চলেছেন নোমান। যার কারণে বিনোদনের সঙ্গে চলছে পড়াশুনা। কচি-কাচারাও পাচ্ছে অনাবিল আনন্দ। দ্রুত রপ্ত করছে প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা। শুধুমাত্র এই কারণে বাচ্চারা নোমান স্যারের ব্যতিক্রমী ক্লাস কখনই মিস করতে চায় না।

এ-তো গেল একরকম। আব্দুল্লাহ আল নোমানের আরও রয়েছে ব্যতিক্রমী কণ্ঠ। যা নিজে কানে না শুনলে বোঝার একদমই উপায় নেই যে, তিনি কোন চরিত্রের মিমিক্রি করছেন। ক্রিকেট বা ফুটবল ধারাভাষ্যকারদের মিমিক্রি যে এতো সহজে করা সম্ভব, তা নোমানকে না দেখলে কেউ বিশ্বাসই করবে না। সেই সঙ্গে জনপ্রিয় সব গায়কের কণ্ঠের গান তো আছেই। যা শুনলে শুধু অবাকই হতে হয়। এমনই এক বিস্ময়কর যুবক নোমান। তার এ সকল ভিন্ন-ভিন্ন কণ্ঠের যাদুতে মুগ্ধ এলাকাবাসী ও স্কুলের অবিভাবক এবং শিক্ষকমন্ডলীরা।

স্কুলছাত্রী মেহজাবিন মুন জানান, স্যার খুব ভালো। তিনি বিভিন্ন ভাষায় কথা বলতে পারেন। যেমন, মটু-পাতলু, ইংরেজি ধারাভাষ্য, ক্রিক্রেটের কথা। আমরা তো শুনে অবাক হই।

অবিভাবক জাহানারা ফেরদৌস জানান, পৃথিবীর অন্যতম কঠিন ও দুরহ কাজ হচ্ছে অন্যের কণ্ঠ নকল করা। তিনি যেভাবে এত সহজে এই বিরল কাজটি অবলিলায় করছেন, তা দেখে ও শুনে সবাই হতবাক। সবাই তাকে নিয়ে গর্ব করে।

স্কুলশিক্ষক নাজনিন নাহার জানান, স্যারের কারণে মাত্র ১ বছরে আমাদের স্কুলের ছাত্রী-ছাত্রী ১শ ছাড়িয়েছে। এ এক বিরল প্রতিভা। যে কারো মন ভালো হয়ে যাবে যখন তখন।অন্যদিকে, নোমানের স্ত্রী সুমাইয়া খাতুন স্বামীর এই বিশেষ গুনে খুব খুশি। এক সময় তার কাছে বিষয়টি স্বাভাবিক না লাগলেও তিনি এখন বোঝেন যে, এটি একটি ব্যতিক্রমী গুণ।

আব্দুল্লাহ আল নোমান জানান, এটা দীর্ঘদিনের চেষ্টার ফল। এর জন্যে তাকে বছরের পর বছর কঠিন পরিশ্রম করতে হয়েছে। তিনি মিমিক্রি করে শুধু দেশে নয় ভারতেও বেশ জনপ্রিয় হয়েছেন। সবাইকে আনন্দ দেওয়া এই মানুষটিরও রয়েছে দুঃখ। তিনি বাংলাদেশের একজন সর্বোচ্চ করোনা আক্রান্ত ব্যক্তি। সর্বোচ্চ ৯ বার তিনি করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। সেই সঙ্গে করোনা আক্রান্তদের সাহায্য করে গেছেন নিজের জীবন বাজি রেখে। কিন্তু পাননি কোনো স্বীকৃতি। বিরল প্রতিভার এই মানুষটিকে যদি সরকারি ভাবে পৃষ্ঠপোষকতা দেওয়া যায় তাহলে আমাদের দেশীয় সংস্কৃতির বেগবানের ক্ষেত্রে  ব্যাপক ভুমিকা রাখতে পারবেন।

পুরোনো সংখ্যা

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০