উচ্চ আদালতের রায় নিয়ে খোলা হলো ভৈরবের আনোয়ারা জেনারেল হাসপাতাল


এস.এম বাকী বিল্লাহ, ভৈরব (কিশোরগঞ্জ) প্রতিনিধি
প্রকাশের সময় : নভেম্বর ২৩, ২০২৩ । ৭:২২ অপরাহ্ণ
উচ্চ আদালতের রায় নিয়ে খোলা হলো ভৈরবের আনোয়ারা জেনারেল হাসপাতাল

কিশোরগঞ্জের ভৈরবে দীর্ঘ আড়াই মাস পর খুলল বেসরকারি হাসপাতাল ভৈরব আনোয়ারা জেনারেল হাসপাতাল। বাংলাদেশ সুপ্রীম কোর্টের হাইকোর্ট বিভাগের বিচারপতি মোস্তফা জামান ইসলাম ও মো. আতাবউল্লাহ হাসপাতালটি খোলার এ রায় দেন। ২৩ নভেম্বর বৃহস্পতিবার সকালে এক সংবাদ সম্মেলনে এই তথ্য নিশ্চিত করেন, আনোয়ারা জেনারেল হাসপাতালের চেয়ারম্যান ডা. আজিজুল হক স্বপন।

জানা গেছে, অনিয়মের অভিযোগ এনে গত ১৪ সেপ্টেম্বর হাসপাতালটি বন্ধ ঘোষণা করে সিলগালা করে দেয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ভ্রাম্যমাণ আদালত। একই সঙ্গে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে এক লক্ষ টাকা জরিমানা করেন। কিশোরগঞ্জ সিভিল সার্জন ডা. সাইফুল ইসলামের নির্দেশে ভ্রাম্যমাণ আদালতের নেতৃত্ব দেন ভৈরব উপজেলা স্বাস্থ্য ও প.প. কর্মকর্তা ডা. বুলবুল আহম্মদ। আর ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. ইকবাল হোসেন।

 

যদি হাসপাতালটি সিলগালা ও জরিমানা করার নেপথ্যের কারণ পারিবারিক দ্বন্দ্ব বলে দাবী করেন ডা. আজিজুল হক স্বপন। এরপর তিনি উচ্চ আদালতে পিটিশন দাখিলের প্রেক্ষিতে গত ১৩ নভেম্বর বিচারপতি মোস্তফা জামান ইসলাম ও মো. আতাবউল্লাহ হাসপাতালটি খোলার রায় দেন। একই সঙ্গে হাসপাতালের কার্যক্রম পরিচালনা করার অনুমতি দেন।
এসব বিষয়ে বৃহস্পতিবার এক সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

 

এসময় উপস্থিত ছিলেন, ভৈরব রিপোর্টার্স ক্লাব ও ইউনিটির সভাপতি তাজুল ইসলাম তাজ ভৈরবী, সিনিয়র সাংবাদিক তুহিন মোল্লা, প্রথম আলোর নিজস্ব প্রতিবেদক সুমন মোল্লা, সাংবাদিক আব্দুর রউফ, আলহাজ্ব সজীব আহমেদ, মো. আল আমিন টিটু, মিলাদ হোসেন অপু, আফসার হোসেন তূর্জা।

অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা আওয়ামী লীগ সহ-সভাপতি তালাওয়াত হোসেন বাবলা, কালিকাপ্রসাদ ইউপি চেয়ারম্যান মো. লিটন মিয়া, ভৈরব পৌর ২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর দ্বীন ইসলাম, বেসরকারি হাসপাতাল মালিক সংগঠনের সভাপতি ডা. আব্দুল্লাহ আল মারুফ, ডক্টরস্ ক্লাব অব ভৈরব এর আহ্বায়ক ডা. মো. মিজানুর রহমান কবির প্রমুখ।

বৃহস্পতিবার থেকে হাসপাতালটি সব বিভাগের ডাক্তারগণ রোগী দেখা শুরু করেছেন। এখন থেকে নিয়মিত রোগীরা এ হাসপাতালে পছন্দমতো ডাক্তারদের সাথে সাক্ষাৎ করতে পারবেন। তাছাড়া অপারেশনের কার্যক্রমও চলবে। কিশোরগঞ্জ জেলায় বেসরকারি হাসপাতালের মধ্যে আনোয়ারা জেনারেল হাসপাতালটি প্রথম প্রতিষ্ঠিত হয়। পুরাতন ঐতিহ্যবাহী এই হাসপাতালটি ১৯৯০ সালে প্রতিষ্ঠা পায়। প্রতিষ্ঠার পর থেকে সুনামের সহিত চিকিৎসা সেবা প্রদান করে আসছে। কিন্তু একটি কুচুক্রিমহল হাসপাতালটির বিরুদ্ধে বিভিন্ন ধরণের অপপ্রচার ও প্রশাসনকে অনৈতিকতভাবে ব্যবহার করে বন্ধ করে দেয়ার পায়তারা করছে।

ডা. আজিজুল হক স্বপন জানান, এই হাসপাতালটি আমার মরহুম আব্বার স্মৃতি বিজড়িত। এ হাসপাতালটি দীর্ঘদিন বন্ধ থাকায় দূরদূরান্ত থেকে আসা রোগীরা সেবা না পেয়ে বাড়িতে ফিরে গেছেন। কেউ বা হাসপাতালের সামনে এসে কান্নাকাটি করেছেন। তাছাড়া হাসপাতালে কর্তব্যরত স্টাফরাও বেশ কিছুদিন কষ্টের মধ্যে কাটিয়েছেন। ডাক্তার সাহেবরাও সঠিক সময়ে আসতে পারেনি। এখন থেকে ডাক্তার সাহেবরা আগের মতোই রোগী দেখবেন। হাসপাতালের সব বিভাগের কার্যক্রম চালু থাকবে। হাসপাতালটি টিকিয়ে রাখতে আমি প্রশাসনের কর্তাব্যক্তিসহ ভৈরববাসীর সহযোগিতা কামনা করছি।

পুরোনো সংখ্যা

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০